২ টি সাধারণ জিনিষ যা আপনি দুবাইতে করতে সাহস পাবেন না, করলেই দেওয়া হতে পারে মৃত্যুদণ্ড !!

প্রত্যেক দেশেরই নিজস্ব কিছু নিয়ম কানুন ও ঐতিহ্য আছে। একটা দেশে একটা জিনিস উপযোগী হলেও অন্য দেশে সেটা উপযোগী নাও হতে পারে, সেটা বেআইনি বলে গণ্য হতে পারে। তাই কোন দেশে যাওয়ার আগে আমাদের সেই দেশের আইন কানুন সম্পর্কে সচেতন হয়ে যাওয়া উচিত।

আজ দুবাই নিয়ে কথা বলা যাক। দুবাই খুবই জনপ্রিয় জায়গা এবং দুবাই পারস্য উপসাগরে অবস্থিত। কিন্তু দুবাই যাওয়ার আগে আপনার ওখানকার কিছু আইন জেনে রাখা প্রয়োজন, যেগুলি করলে আপনি অসুবিধায় পড়তে পারেন। এখানে সেগুলো নিয়ে আলোচনা করা হল।

১. প্রকাশ্যে মদ্যপান নিষিদ্ধ।

প্রকাশ্যে মদ্যপানের ক্ষেত্রে দুবাইয়ে কিছু নিয়ম মেনে চলা প্রয়োজন, না হলে আপনি সমস্যায় পড়বেন। কিন্তু বিদেশী অধিবাসীদের কাছে যদি লাইসেন্স থাকে তাহলে তারা বাড়িতে মদ্যপান করতে পারে। পর্যটকরা লাইসেন্স প্রাপ্ত হটেলে মদ্যপান করতে পারে। আর ভুলেও মদ্যপান করে গাড়ি চালাবার কথা ভাববেন না, ধরা পড়লে কঠোর শাস্তি হতে পারে।

২. ড্রাগস নেবেন না।

দুবাইয়ে ড্রাগস নিয়ে নিয়ম খুবই কড়া। দুবাইয়ে ড্রাগ পুরোপুরি নিষিদ্ধ। কিছু বিদেশী ড্রাগ নিয়ে ধরা পড়ায় তাদের জেল পর্যন্ত হয়ে গেছে।

৩. নাচ গান বন্ধ।

যদি দুবাইয়ের রাস্তায় আপনার নাচবার খুব ইচ্ছা হয় তাহলে নিজের বাসনাকে নিয়ন্ত্রণ করুন। দুবাইয়ের রাস্তায় নাচ গান করার অপরাধে আপনার সাজা হবে।

৪. কোন পি.ডি.এ. নয়।

দুবাইয়ের লোকেরা পি.ডি.এ কে খুব একটা ভাল চোখে দেখে না, তারা এটাকে অভদ্রতা ভাবে। একটা ব্রিটিশ যুগল পার্কের বেঞ্চে যৌনক্রিয়ায় লিপ্ত হওয়ায় তাদের জেল হয়ে যায়। এমনকি গালে একটা ছোট্ট চুম্বন দিলেও আপানার জেল হয়ে যেতে পারে, তাই সমস্ত রকম পি.ডি.এ থেকে দূরে থাকুন।

৫. কোন রকম নগ্নতা নয়।

এই নিয়মটা যে শুধুমাত্র টপলেস মেয়েদের জন্য প্রযোজ্য তাই নয় এটা সেই সব ছেলেদের খেত্রেও সমানভাবে প্রযোজ্য যারা সিক্স প্যাক দেখাতে খুবই পটু। এমনকি জগিং করতে গেলেও আপনাকে ঠিকভাবে পোষাক পড়তে হবে।

৬. নিজের স্টাইল নিয়ে সচেতন হতে হবে।

ভূলেও বেশি চামড়া বা শরীরের খাঁজ দেখাতে যাবেন না, তাহলে আপনার ফাইন হয়ে যেতে পারে। দুবাই আধুনিক ফ্যাশান সম্পর্কে যথেষ্ট সচেতন হলেও বিশেষ করে মেয়েদের ছোট পোশাকের ক্ষেত্রে কিছু বাধা নিষেধ আছে।

৭. ফটোগ্র্যাফি

অনেক পর্যটকই দুবাইয়ে স্থানীয় পোশাক পরিহিত পুরুষ-মহিলাদের ছবি তোলার চেষ্টা করে। কিন্তু সেক্ষেত্রে আপনার স্থানীয় নিয়ম কানুন ও ঐতিহ্য সম্পর্কে সচেতন হতে হবে। আপনি যদি কারুর সম্মতি ছাড়াই ছবি তোলেন, বিশেষ করে মহিলাদের তাহলে সেটা অসম্মান জনক ধরা হবে।

৮. নিজের ভাষা সম্পর্কে সচেতন হন।

দুবাইতে অশ্লীল ভাষা ব্যবহার থেকে সরে থাকুন। এক পর্যটক গালাগালি দেওয়ায় তাকে জরিমানা করা হয়েছিল। ইসলাম ধর্মের বিরুদ্ধে ভূলেও কিছু বলবেন না। নিজের ভাবনা নিজের ভিতরেই রাখুন। বাক স্বাধীনতা কোন সার্বজনীন অধিকার নয়।

৯. নিজের ওয়ালেট সম্পর্কে সচেতন থাকুন।

দুবাইয়ে অপরাধের হার অনেক কম তবুও আপনার সচেতন থাকা উচিত যাতে পরে ভূগতে না হয়।

১০. নিজের সমকামী মনোভাব লুকিয়ে রাখুন।

বিশ্বের অনেক দেশেই সমকামীতা এখনও নিষিদ্ধ। দুবাইয়ে সমকামীতাকে এখনও অপরাধ বলে ধরা হয়।

১১. রামজান এ প্রকাশ্যে খাবেন না।

আপনার ধর্ম যাই হোক না কেন, রামজানের সময় ভূলেও প্রকাশ্যে কিছু খাবার চেষ্টা করবেন না। চুইংগাম খাওয়াটাকেও অসম্মানজনক ধরা হয়। প্রকাশ্যে সিগারেট বা মদ্যপান করবেন না। তবে আপনি নিজের বাড়ী এবং রেস্টুয়ারেন্টে খেতে পারেন। গর্ভবতী মহিলা এবং বাচ্চাদের এই নিয়ম থেকে ছাড় দেওয়া হয়েছে।

১২. বাঁ হাত ব্যবহার করবেন না।

দুবাইয়ের লোকেরা খাওয়া এবং হাত মেলানোর জন্য বাঁ হাতটাকে ব্যবহার করেন না, কারণ তারা এই হাতটাকে অপরিষ্কার ধরেন। তাই দুবাইয়ে থাকার সময় বাঁ হাতটা এড়িয়ে চলুন।

Leave a Reply