পরীক্ষায় মেয়ে দ্বিতীয় হওয়ায় শিক্ষক পেটালেন বাবা..!

সিলেটে চতুর্থ শ্রেণীর এক ছাত্রী বার্ষিক পরীক্ষায় দ্বিতীয় স্থান পাওয়ায় এক শিক্ষককে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছেন মেয়েটির বাবা। সোমবার জকিগঞ্জ উপজেলার গোটারগ্রাম ত্রিমোহনীতে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় পর্যায়ে শিক্ষকদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

জানা যায়, স্থানীয় হাড়িকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী নাঈমা হক লস্করের রোল ছিল এক। গেল বার্ষিক পরীক্ষায় সে দ্বিতীয় হয়। এ নিয়ে গত রবিবার তার বাবা বদরুল হক লস্কর বিদ্যালয়ে গিয়ে শিক্ষকদের প্রতি উত্তেজিত হয়ে ওঠেন। এ বিষয়ে গত সোমবার শিক্ষকরা বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি মোস্তাক আহমদ লস্করের কাছে বিচার দেন। তখন সেখানে থাকা বদরুল হক লস্কর বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আবু সালমান শিব্বিরকে পিটিয়ে আহত করেন।

সহকারী শিক্ষক আবু সালমান শিব্বির বলেন, জনসম্মুখে আমাকে পিটুনি দিয়েছেন বদরুল হক লস্কর। বিষয়টি মীমাংসার জন্য বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটি চেষ্টা করছে।

অভিযুক্ত বদরুল হক লস্কর বলেন, আমি বিদ্যালয়ের লেখাপড়ার মান নিয়ে কথা বললে ওই শিক্ষক আমার উপর রাগান্বিত হয়ে খারাপ আচরণ করেন। তিনি আমাকে ঘুষি মারলে আমিও শিক্ষককে পাল্টা জবাব দেই।

হাড়িকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহজাহান আলম বলেন, শিক্ষক আবু সালমান শিব্বির জনসম্মুখে লাঞ্ছিত হয়েছেন। এ ঘটনা দুঃখজনক।

জকিগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি আব্দুস শহীদ তাপাদার বলেন, আমরা শিক্ষকের উপর নির্যাতনকারী অভিভাবকের দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই।

জকিগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসার কাজী সাইফুল ইসলাম বলেন, আমি অফিসের কাজে ঢাকায় রয়েছি। ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে সমাধানের চেষ্টা করছেন এলাকার বিশিষ্টজনরা। সম্মানজনকভাবে সমাধান না হলে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

সূত্র:বিডি প্রতিদিন

Leave a Reply