দিনেদুপুরে বাইক থামিয়ে স্বামী-সন্তানের সামনেই গণধর্ষণ যুবতীকে !

স্বামীকে বাঁধা হল গাছের সঙ্গে। হুমকি দেওয়া হল তাঁদের ২ বছরের ছোট্ট ছেলেটির ক্ষতি না চাইলে কেউ যেন শব্দ না করে। তার পর একে একে চারজন দুষ্কৃতী মিলে ধর্ষণ করল বছর তিরিশের গৃহবধূকে। এমনই নৃশংস ঘটনা ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের মুজফফরনগরে।

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের সূত্রে জানা যাচ্ছে, শুক্রবার সকালে কাছেরই এক গ্রামে ছেলেকে চিকিৎসক দেখাতে গিয়েছিলেন ওই দম্পতি। ফেরার পথে তাঁদের বাইকের পথ আটকায় এক গাড়ি। গাড়ি থেকে নেমে আশা দুষ্কৃতীরা মহিলার স্বামীকে মারতে থাকে, ও স্বামী-সন্তান সহ ওই মহিলাকে টানতে টানতে আখের খেতে নিয়ে যায়।

এর পরে তাঁদের ২ বছরের শিশুপুত্রের গলায় ছুরি ঠেকিয়ে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয়। তার পর ধর্ষণ করা হয় ওই মহিলাকে। মহিলার চিৎকার শুনে ছুটে আসেন পাশের খেতের এক কৃষক। কিন্তু ততক্ষণে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে ধর্ষকরা। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। আক্রান্ত মহিলা ও তাঁর স্বামী থানায় এফআইআর দায়ের করেছেন। পুলিশ তদন্তে নেমেছে। ওই মহিলা ও তাঁর স্বামীর ডাক্তারি পরীক্ষাও করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালানো শুরু হয়েছে। যত দ্রুত সম্ভব অভিযুক্তদের ধরতে চাইছে পুলিশ।

Leave a Reply