আমির, মোহাম্মদ আমির। পাকিস্তানের এই পেসার বিপিএলের ইতিহাসে নিজের নাম পাকাপাকিভাবে লিখে দিলেন। চার ওভার বলে করে রান দিয়েছেন মাত্র ১৭, নিয়েছেন ছয়টি উইকেট! তিনি একাই গুঁড়িয়ে দিয়েছেন রাজশাহীকে, খুলনাকে তুলেছেন ফাইনালে। আমিরের বোলিং তোপে খুলনা গুটিয়ে গেছে মাত্র ১৩১ রানে। আমিরের ছয় উইকেটের মধ্যে চারটিই খুলনার প্রথম চার ব্যাটসম্যানের।

প্রথম কোয়ালিফায়ারে রাজশাহীর বিস্ফোরক ব্যাটিং লাইন-আপের সামনে মাত্র ১৫৯ রান টার্গেট দিয়ে খুলনার অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম হয়তো দুশ্চিন্তাতেই ছিলেন। এই বিপিএলে ভয়ংকরভাবে খেলছেন রাজশাহীর দুই ওপেনার লিটন-আফিফ। মুশফিকের দুশ্চিন্তা যৌক্তিকই ছিল। তবে এই চিন্তা মুছে দিতে একদমই সময় নেন নি আমির। নিজের প্রথম ওভারে নেন লিটনের উইকেট, পরের ওভারে আফিফ ও অলক কাপালির উইকেট। পরে ফিরিয়েছেন শোয়েব মালিক, আন্দ্রে রাসেল ও তাইজুলকেও। ফলাফলে এই ম্যাচটা হয়ে গেল শুধুই আমিরের ম্যাচ।

এর আগে, খুলনার হয়ে নিয়মিত ওপেনিংয়ে ঝড় তোলা মিরাজ আজ বিপজ্জনক হয়ে ওঠার আগেই ফিরেছিলেন। একটুপর ফিরলের রাইলি রুশোও। তখন মনে হয় নি ইনিংস শেষে রাজশাহীর সামনে ১৫৮ রান জমা করবে খুলনা। খুলনাকে রীতিমতো বেঁধে ফেলেছিলেন স্পিনার মেহেদী হাসান ও পেসার মোহাম্মদ ইরফান। প্রথম তিন ওভারে মাত্র ১৫ রান তুলে উইকেট হারিয়ে খুলনা তখন অকূল পাথারে।

খুলনাকে এই চোরাবালি থেকে টেনে তুললেন আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান নাজমুল হোসেন শান্ত ও শামসুর রহমান। দলীয় রানে শামসুর ফিরলেও শান্ত থেকেছেন, তিনি করেছেন ৫৭ বলে ৭৮রান। আর তেমন কেউ রান পান নি খুলনার হয়ে। রাজশাহীর পক্ষে সর্বোচ্চ দুই উইকেট নিয়েছেন পেসার মোহাম্মদ ইরফান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here