Internation News

করোনা ম’হামা’রির দ্রু’ত অবনতি যে ৮ দেশে !!

করোনাভা’ইরাসে আ’ক্রান্ত হয়েছেন বিশ্বের ২১২টি দেশের সাড়ে ৩৫ লাখের বেশি মানুষ। ইতিমধ্যে এই ম’হামা’রিতে মারা গেছেন প্রায় আড়াই লাখ মানুষ, অর্থাৎ ২ লাখ ৪৮ হাজার ২৮৬ জন। করোনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর তালিকার শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, স্পেন, ইতালি, যুক্তরাজ্য, স্পেন, জার্মানি ও চীন। তবে বর্তমানে এই দেশগুলোর করোনা পরিস্থিতির বেশ উন্নতি হয়েছে।

এখানে চীনের কথা বিষেশভাবে উল্লেখ করতে হয়। দেশটির করোনা পরিস্থিতির এতটাই উন্নতি হয়েছে যে, সেখানে বেশ কয়েকদিন ধরে করোনায় কোনও মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে না, এমনকি নতুন আ’ক্রান্ত নেই বললেই চলে। গত রোববার চীনে মাত্র দুইজন আ’ক্রান্ত হয়েছে। এ কারণেই করোনা তালিকার শীর্ষ দশ থেকে নেমে এসেছে চীন।

কিন্তু দ্রুত সংক্রমণ ও মৃত্যু বাড়ছে নতুন কয়েকটি দেশে, যেগুলোর পরিস্থিতি এতদিন বেশ ভালোই ছিল।বর্তমানে যে আটটি দেশে করোনা মৃত্যু ও সংক্রমণ দ্রুত বাড়ছে তার অন্যতম ব্রাজিল। ওই অঞ্চলেরই মেক্সিকো, ইকুয়েডর ও পেরুতেও একই অবস্থা। এ ছাড়া কানাডা, রাশিয়া, তুরস্ক ও ভারতে পরিস্থিতির দ্রুত অবনতি হচ্ছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারস ডট ইনফোর সর্বশেষ পরিসংখ্যান বলছে, দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ব্রাজিলের পরিস্থিতি ক্রমেই ভয়াবহ হয়ে উঠছে। দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনায় আ’ক্রান্ত হয়েছেন এক লাখের বেশি মানুষ। অর্থাৎ ১ লাখ ১ হাজার ৮২৬ জন। এদের মধ্যে রোববার গত ২৪ ঘণ্টায় আ’ক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৫ হাজার মানুষ, ৪ হাজার ৫৮৮ জন। আজ সকাল থেকেই দেশটিতে নতুন করে আ’ক্রান্ত হয়েছেন আরও ৬৭৯ জন। প্রতিদিন রোগী শনাক্ত হচ্ছে পাঁচ থেকে ছয় হাজার করে।

করোনায় দেশটিতে এ পর্যন্ত মারা গেছে ৭ হাজার ৫১ জন। এদের মধ্যে গত রোবারই মারা গেছে আড়াইশ’ জনের বেশি মানুষ। এর আগে গত বৃহস্পতিবার ৫২০ এবং রোববার মারা গিয়েছিল ৫০৯ জন। এছাড়া শুক্রবার ৪৪৮, শনিবার ৩৯০ এবং সোমবার মারা গেছেন ৩৪০ জন।

এ অবস্থায় বিশ্বের করোনা তালিকার ৯ নম্বরে উঠে এসেছে দেশটি।এই পরিস্থিতি সত্ত্বেও যুক্তরাষ্ট্রের মতো এই দেশেও চলছে লকডাউনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ। সে বিক্ষোভে সমর্থন জানিয়েছেন স্বয়ং ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জইর বলসোনারো।

লাতিন আমেরিকার আরেক দেশ পেরুতেও করোনা রোগীর সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে। এ পর্যন্ত সেখানে করোনায় আ’ক্রান্ত হয়েছেন মোট ৪৫ হাজার ৯২৮ জন। আর মারা গেছে ১ হাজার ২৮৬ জন।গত সাত/আট দিন ধরে রোজ সেখানে গড়ে আড়াই থেকে তিন হাজারের বেশি মানুষ করোনায় সংক্রমিত হচ্ছে। রোববারও পেরুতে ৩ হাজার ৩৯৪ জন নতুন করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। ওইদিন মারা গেছেন আরও ৮৬ জন।

তবে আশার কথা এই যে, পেরুতে করোনা থেকে সেরে উঠা মানুষের সংখ্যাও কিন্তু কম না। এ পর্যন্ত সেরে উঠেছেন সাড়ে ১৩ হাজারের বেশি মানুষ। এখনও চিকিৎসাধীন রয়েছেন আরো ৩১ হাজার করোনা রোগী।এই অঞ্চলের আরেক দেশ ইকুয়েডরের করোনা পরিস্থিতির-ও দ্রুত অবনতি হচ্ছে। এ পর্যন্ত সেখানে করোনায় আ’ক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৩০ হাজার (২৯ হাজার ৫৩৮ জন) মানুষ। এদের মধ্যে রোববার গত ২৪ ঘণ্টায় আ’ক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজারের বেশি মানুষ এবং মারা গেছেন আরও ১৯৩ জন।

দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন এ পর্যন্ত ১ হাজার ৫৬৪ জন। এদের মধ্যে গত পাঁচ দিনেই মারা গেছেন নয় শর বেশি মানুষ।পরিস্থিতি ধারাবাহিকভাবে খারাপ হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেশী কানাডায়ও। দেশটিতে গত এক মাসের প্রথম ১৫ দিন দৈনিক এক হাজারের বেশি এবং শেষ ১৫ দিন দৈনিক দেড় হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছেন। আর মৃত্যুও গত ২০ দিনে কোনো দিন এক শর নিচে নামেনি। বেশির ভাগ দিন ছিল দেড় শর পাশাপাশি, একদিন তা দুই শও ছাড়িয়েছে। গত শনিবারও মারা গেছেন ১৭৫ জন। তার আগের দিন ২০৭ জন। সব মিলিয়ে কানাডায় মৃত্যু সাড়ে তিন হাজার ছাড়িয়ে গেছে, ৩ হাজার ৬৮২ জন। এ পর্যন্ত করোনায় আ’ক্রান্ত হয়েছেন কানাডার প্রায় ৬০ হাজার (৫৯ হাজার ৪৭৪ জন) মানুষ।

মেক্সিকোতে আজ সোমবার সকালেই আ’ক্রান্ত হয়েছেন আরো ১ হাহার ৩৮৩ জন এবং মারা গেছেন ৯৩ জন। এই মুহূর্তে দেশটিতে করোনায় আ’ক্রান্ত হয়েছেন মোট ২৩ হাজার ৪৭১ জন এবং মারা গেছেন ২ হাজার ১৫৪। এদের মধ্যে রোববারই আ’ক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ৩৪৯ জন। তবে এক দিনে সবচেয়ে বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন শনিবার, ১ হাজার ৫১৫ জন।

যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের স্পেন, ইতালি, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য ও জার্মানির পর সবচেয়ে বেশি রোগী এখন রাশিয়ায়। গত ১৫ দিন ধরে গড়ে প্রতিদিন পাঁচ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে দেশটিতে। সেখানে রোববারও ১০ হাজার ৬৩৩ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে রাশিয়ায় এ পর্যন্ত করোনা রোগীর মোট সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ৩৪ হাজার ৬৮৭ জনে। এত বেশি রোগী নিয়ে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে কম মৃত্যু এই দেশটিতে। এ পর্যন্ত সেখানে মারা গেছেন প্রায় ১ হাজার ২৮০ জন।

এ অবস্থায় রাশিয়া সরকার ১২ মে থেকে দেশে আরোপিত বিধিনিষেধ শিথিল করার কথা ভাবছে।সংক্রমণ ও মৃত্যু দ্রুত বাড়ছে আমাদের প্রতিবেশী দেশ ভারতেও। সোমবার সকাল পর্যন্ত দেশটিতে মোট ৪২ হাজার ৫৩৩ জন আ’ক্রান্ত হয়েছেন। আর মারা গেছেন প্রায় ১৪শ মানুষ।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ তুরস্কেও করোনা পরিস্থিতিরও ব্যাপক অবনতি হয়েছে। এ পর্যন্ত সেখানে ১ লাখ ২৬ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আ’ক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে রোববারই নতুন সংক্রমিত হয়েছেন ১ হাজার ৬৭০ জন এবং মারা গেছেন ৬১ জন। সবমিলিয়ে দেশটিতে এ পর্যন্ত মারা গেছে ৩ হাজার ৩৯৭ জন। সূত্র: ওয়ার্ল্ডোমিটারস

J A Suhag

Local News: J A Suhag writes Local News articles for industries that want to see their Google search rankings surge. His articles have appeared in a number of sites. His articles focus on enlightening with informative Services sector needs. he holds the degree of Masters in Business and Marketing. Before he started writing, he experimented with various professions: computer programming, assistant marker, Digital marketing, and others. But his favorite job is writing that he is now doing full-time. Address: 44/8 - North Dhanmondi, Dhaka Email: [email protected]

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button