বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হ’ত্যা মামলার অন্যতম আসামি রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন বাতিলের বিষয়ে আবেদনের মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) আদেশ দেবেন সংশ্লিষ্ট আইনজীবী। একই দিনে এ মামলার প্রাপ্তবয়স্ক ও অপ্রাপ্তবয়স্ক আসামিদের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হবে। এদিকে মামলার ধার্য তারিখ থাকায় অন্যান্য দিনের চেয়ে মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) আদালতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আদালত প্রাঙ্গণে দায়িত্ব পালন করছেন ডিবি পুলিশসহ গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরাও।

মামলার ধার্য তারিখ থাকায় সকাল ৮টার দিকে এ মামলার প্রাপ্তবয়স্ক আট আসামিকে বরগুনা জেলা কারাগার থেকে আদালতে হাজির করেছে পুলিশ। একই সঙ্গে এ মামলার অপ্রাপ্তবয়স্ক ১১ আসামিকেও বরগুনার কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়েছে। আদালতে হাজির হয়েছেন উচ্চ আদালতের আদেশে জামিনে থাকা নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি।

সকালে রিফাত শরীফ হ’ত্যা মামলার প্রাপ্তবয়স্ক ১০ আসামির বিরুদ্ধে বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে সাক্ষ্য দেবেন নিহত রিফাতের দুই চাচাসহ এ মামলার তিনজন সাক্ষী। একই দিন বিকেলে বরগুনা শিশু আদালতে অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ আসামির বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেবেন নিহত রিফাতের মা ডেইজি বেগম এবং চাচাতো বোন নুসরাত জাহান অনন্যা।

এ মামলার সংশ্লিষ্ট আইনজীবীরা জানান, রিফাত হ’ত্যা মামলার দুই সাক্ষীকে হুমকি দেয়ার অভিযোগে নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন বাতিলের আবেদন করেছে রাষ্ট্রপক্ষ। গত ৮ জানুয়ারি বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ আদালতে এ জামিন বাতিলের আবেদন করা হয়। রাষ্ট্রপক্ষের করা আবেদনের প্রেক্ষিতে মিন্নির জামিন কেন বাতিল করা হবে না এ মর্মে শোকজ করেছেন আদালত। আজ এই শোকজের উত্তর আদালতে উপস্থাপন করার কথা রয়েছে মিন্নির আইনজীবী অ্যাডভোকেট মাহবুবুল বারী আসলামের।

মিন্নির জামিন কেন বাতিল করা হবে না এই মর্মে আদালতের করা শোকজের বিষয়ে গত ৯ জানুয়ারি মিন্নির আইনজীবী অ্যাডভোকেট মাহবুবুল বারী আসলাম বলেছিলেন, মিন্নির জামিন বাতিলের জন্য রাষ্ট্রপক্ষ আদালতে যে অভিযোগ করেছে তার সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন এবং অবিশ্বাসযোগ্য। মঙ্গলবার আদালতে শোকজের জবাব উপস্থাপন করবেন তিনি।

এ বিষয়ে রিফাত হ’ত্যা মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মুজিবুল হক কিসলু বলেন, বহুল আলোচিত রিফাত শরীফ হ’ত্যা মামলার প্রাপ্তবয়স্ক এবং অপ্রাপ্তবয়স্ক আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে সাক্ষ্যগ্রহণের ধার্য তারিখ রয়েছে। একই সঙ্গে এ মামলার অন্যতম আসামি নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন কেন বাতিল হবে না- এই মর্মে আদালতে শোকজের উত্তর দেয়ার কথা রয়েছে সংশ্লিষ্ট আইনজীবীর।

তিনি আরও বলেন, মিন্নির জামিন বাতিল করা বা না করার এখতিয়ার সম্পূর্ণ আদালতের। সংশ্লিষ্ট আইনজীবীর মাধ্যমে আদালতে উপস্থাপন করা শোকজের উত্তরে যদি আদালত সন্তুষ্ট হয় তাহলে মিন্নির জামিন বাতিল নাও হতে পারে। অথবা আদালত চাইলে মিন্নির জামিন বাতিল করতে পারেন অথবা এ বিষয়ে তদন্তের আদেশ দিতে পারেন।

গত ২৬ জুন বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে রিফাত হ’ত্যাকাণ্ড ঘটে। গত ১ সেপ্টেম্বর বিকেলে ২৪ জনকে অভিযুক্ত করে প্রাপ্তবয়স্ক ও অপ্রাপ্তবয়স্ক দুই ভাগে বিভক্ত করে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে পুলিশ। এর মধ্যে প্রাপ্তবয়স্ক ১০ জন এবং অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ জন।

এ মামলার চার্জশিটভুক্ত প্রাপ্তবয়স্ক আসামি মো. মুসা এখনো পলাতক রয়েছেন। এছাড়া নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি ও অপ্রাপ্তবয়স্ক আসামি প্রিন্স মোল্লা উচ্চ আদালতের আদেশে এবং বরগুনার শিশু আদালতের আদেশে মারুফ মল্লিক এবং আরিয়ান হোসেন শ্রাবণ জামিনে রয়েছেন। আর বাকি আসামিরা কারাগারে।

গত ১ জানুয়ারি রিফাত হ’ত্যা মামলার প্রাপ্তবয়স্ক ১০ আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ আদালত। অন্যদিকে গত ৮ জানুয়ারি রিফাত হ’ত্যা মামলার অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন বরগুনার শিশু আদালত।

রিফাত হ’ত্যা মামলার প্রাপ্তবয়স্ক অভিযুক্তরা হলেন- রাকিবুল হাসান রিফাত ফরাজি, আল কাইউম ওরফে রাব্বি আকন, মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত, রেজওয়ান আলী খান হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয়, মো. হাসান, মো. মুসা, আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি, রাফিউল ইসলাম রাব্বি, মো. সাগর, এবং কামরুল ইসলাম সাইমুন।

রিফাত হ’ত্যা মামলার অপ্রাপ্তবয়স্ক অভিযুক্তরা হলেন মো. রাশিদুল হাসান রিশান ফরাজী, মো. রাকিবুল হাসান রিফাত হাওলাদার, মো. আবু আবদুল্লাহ রায়হান, মো. ওলিউল্লাহ অলি, জয় চন্দ্র সরকার চন্দন, মো. নাইম, মো. তানভীর হোসেন, নাজমুল হাসান, রাকিবুল হাসান নিয়ামত, মো. সাইয়েদ মারুফ বিল্লাহ মহিবুল্লাহ, মারুফ মল্লিক, প্রিন্স মোল্লা, রাতুল সিকদার জয় এবং আরিয়ান হোসেন শ্রাবণ।

সূত্রঃ বিডি২৪লাইভ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here