রাজনীতি

সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ ৩০ আসনও পাবে না: মির্জা ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আওয়ামী লীগ এখন সুষ্ঠু নির্বাচনের আশঙ্কা করছে। তারা জানে আগামী জাতীয় নির্বাচন সুষ্ঠু হলে তারা ৩০ টি আসনও পাবে না।

এজন্য তারা প্রশাসন, বিচার বিভাগ, রাষ্ট্রযন্ত্র, এমনকি গণমাধ্যমকেও নিয়ন্ত্রণ করেছে। এভাবে ক্ষমতায় থাকার চেষ্টা। ভয়ঙ্কর আইন তৈরি করে, এটি সন্ত্রাস সৃষ্টি করে দেশের মানুষকে তার পায়ের নিচে রাখছে। শনিবার বিকেলে রাজধানীর ইনস্টিটিউশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

২০০১ সালের ১ অক্টোবর বিএনপি এই সভার আয়োজন করেছিল: নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে শেষ নির্বাচন। এতে দলের নেতাদের পাশাপাশি বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। দলের নীতিনির্ধারকরা বলেন, নির্বাচনকালীন সরকারের দাবিতে এটিই প্রথম কর্মসূচি; তারপর ধাপে ধাপে আরো প্রোগ্রাম আসবে।

এদিকে, করোনার কারণে নেতা -কর্মীরা দীর্ঘদিন পর একটি বড় পরিসরে একটি সভায় যোগ দিয়েছেন। এজন্য তাদেরকে উত্তেজিত হতে দেখা গেছে। রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা সকাল থেকেই সভাস্থলে আসতে শুরু করেন।

সকাল ১০ টার আগে যখন অডিটোরিয়াম পূর্ণ ছিল, তখন নেতাকর্মীরা বাইরে অবস্থান নেয়। তাদের খালেদা জিয়া, তারেক রহমান এবং অন্যান্য নেতাকর্মীদের নিশর্ত মুক্তির দাবিতে স্লোগান দিতে দেখা গেছে। সরকারকে সতর্ক করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, নির্বাচন একটি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে এবং একটি নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন দ্বারা পরিচালিত হওয়া উচিত। যদি নিরপেক্ষ সরকার না থাকে, আমরা সেই নির্বাচন মেনে নেব না। নির্বাচন আর নির্বাচনী খেলা হবে না।

তিনি অভিযোগ করেন, আওয়ামী লীগ এখন আবার ক্ষমতায় আসার চেষ্টা করছে। তিনি এমন নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসতে চান যেখানে জনগণ ভোট দিতে পারবে না। এজন্য তারা ইভিএম চালু করেছে। এই ইভিএম তাদের জন্য আরেকটি দুর্দান্ত হাতিয়ার। কীভাবে ভোট চুরি করবেন, কীভাবে ভোট না পেয়ে নিজেকে নির্বাচিত ঘোষণা করবেন: তারা সেই ইভিএম করছে।

Jannat Tia

Hey! I'm Jannat Tia. Bangladeshi Content creator and Content writer. I would like to write about trending topic and news of National and International

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button